অবশেষে ১২ ই সেপ্টেম্বর খুলছে সকল শিক্ষা-প্রতিস্টান

দীর্ঘ দেড় বছর ধরে বন্ধের পর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তের পর এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীর ক্লাসের সময়ও এগিয়ে আনা হবে।

পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী, ১৫ অক্টোবরের পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার কথা বলা হয়েছিল।

কিন্তু শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি গতকাল শুক্রবার বলেছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়ে তাঁরা আবারও বসবেন। উপাচার্যরা যদি অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে একই সঙ্গে খুলতে রাজি হন, তাহলে খুলবেন কিংবা ভিন্ন কোনো তারিখও নির্ধারণ করতে পারেন।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয় পরিষদের সভাপতি এবং চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ রফিকুল আলম প্রথম আলোকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে আবারও বসার কথা বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে যে সিদ্ধান্ত হবে, সে অনুযায়ী তাঁরা ব্যবস্থা নেবেন।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার বিষয়ে কাল রোববার একটি আন্তমন্ত্রণালয় সভা ডাকা হয়েছে। সেখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলাসহ বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

করোনার কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি চলছে। সরকারের সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী, চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছুটি রয়েছে। জাতিসংঘ শিশু তহবিল বা ইউনিসেফের ২৪ আগস্ট প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,

কোভিডের কারণে দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ রয়েছে এমন দেশের তালিকায় বাংলাদেশ দ্বিতীয় অবস্থানে। দীর্ঘ বন্ধের ফলে প্রাক্-প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা স্তর পর্যন্ত চার কোটির বেশি শিক্ষার্থী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

Spread the love to your friends